Return to site

খিচুড়ি

Mousumi Kundu Paul

খিচুড়ি আমাদের দেশের একটি অতি প্রাচীন ও সুস্বাদু খাদ্য। এটি সমস্ত বর্গের লোকেরা খুব আনন্দের সাথে গ্রহণ করে।খিচুড়ি শুধু আমাদের ঘরয়া খাবার নয় ,এটি সমস্ত রকম পুজার ভোগ হিসেবেও গৃহীত হয়েছে।খিচুড়ি বৃষ্টি দিনের একটি অত্যন্ত পছন্দসই ও জনপ্রিয় খাদ্য। এটি ইটালিয়ান খাবার রিসো (Riso) এর সাথে সামঞ্জস্য রাখে। খিচুড়ি প্রধানত দক্ষিণ এশিয়া থেকে আসেছে। দক্ষিণ এশিয়ায়ে খিচুড়ি খুব জনপ্রিয় খাদ্য ছিল, ওখান থেকে এটি সমগ্র ভারতবর্ষ তথা বিশ্বে ছড়িয়া পড়েছে।এটি সহজ পাচ্য ও তৈরি করতেও খুব সহজ।

খিচুড়ি রান্নার উপকরণ

  • খিচুড়ি তৈরি করার জন্য আমাদের লাগছে
  • গোবিন্দভোগ চাল----------------------৫০০গ্রাম
  • মুগের ডাল-----------------------------২৫০গ্রাম
  • নুন-------------------------------------পরিমাণ মতো
  • হলুদ------------------------------------১ চা চামচ
  • শুঁকনো লঙ্কা --------------------------২/৩ টে
  • তেজ পাতা ----------------------------২/৩ টে
  • গোটা জিরে---------------------------- ১ চা চামচ
  • টম্যাটো -------------------------------১ টা
  • সরষের তেল---------------------------৫০ গ্রাম
  • কাঁচা লঙ্কা ----------------------------২/৩ টে
  • চিনি-----------------------------------পরিমাণ মতো
  • আদা বাঁটা ----------------------------১ চা চামচ

পদ্ধতি

১ম ধাপ-

প্রথমে একটি শুঁকনো কড়াইয়ে ২৫০ গ্রাম মুগের ডাল দিয়ে সেটিকে ভালো করে ভেজে নিয়ে তুলে রাখতে হবে।

চাল

মুগের ডাল

২য় ধাপ-

তারপর কড়াইতে ৫০ গ্রাম মতো তেল দিয়ে টাতে গোটা জিরে,শুঁকনো লঙ্কা, তেজ পাতা, আদা বাঁটা দিয়ে ফোঁড়ন দিতে হবে।

৩য় ধাপ-

তারপর কড়াইতে চাল ও ডাল ভালো করে দিয়ে দিতে হবে।

৪থ ধাপ-

সেই চাল ও ডালের মিশ্রণটিকে ভালো করে ভেজে টাতে এখন নুন, হলুদ, কাঁচা লঙ্কা, চিনি, টম্যাটো দিয়ে ভালো করে নেড়েচেড়ে তাতে পরিমাণ মতো জল দিয়ে দিতে হবে।

৫ম ধাপ-

অবশেষে চাল সিদ্ধ হয়ে গেলে কিছুক্ষণের জন্য ঢাকা দিয়ে রাখতে হবে।চাল ও ডাল ভালো করে সিদ্ধ হয়ে গেলেই তৈরি হয়ে হবে আমাদের খিচুড়ি।

টিপস

খিচুড়ি খুবই স্বাস্থ্যকর ও সহজ পাচ্য খাদ্য। এটি কেবল মুগের ডাল দিয়েই তৈরি হয়ে তা নয়। এটি মুসুর ডাল, মটর ডাল আর অনন্যা ডাল দিয়ে হতে পারে। তাছাড়া খিচুড়িতে মরশুম হিসেবে ফুলকপি ,মটরশুটি ইত্যাদি দেওয়া যায়ে। সর্ষের তেল ছাড়া খিচুড়ি বানাতে সাদা তেল বা ঘি ব্যবহার করা যায়।অসুস্থ মানুষের পথ্য হিসাবে খিচুড়ি ব্যবহৃত হয়।

নিউট্রিশন মূল্য

খিচুড়ি অনেক সাস্থকর খাদ্য। এক বাটী খিচুড়িতে

ক্যালোরি------------------৩৩৬

টোটাল ফ্যাট--------------১৬ গ্রাম

কোলেস্টেরল--------------১০মিলি গ্রাম

সোডিয়াম-----------------৬২০ মিলিগ্রাম

পটাশিয়াম----------------৩৫৬মিলিগ্রাম

ডায়েটরই ফাইবার --------৫গ্রাম

প্রোটিন-------------------৮ গ্রাম।

All Posts
×

Almost done…

We just sent you an email. Please click the link in the email to confirm your subscription!

OKSubscriptions powered by Strikingly